Home Jalpaiguri করলা নদীকে দূষন করার দাবী

করলা নদীকে দূষন করার দাবী

95
0

জলপাইগুড়ি, ২৩ জানুয়ারি:   দূষিত করলা নদীর জলে এখন বিয়ের অনুষ্ঠানে স্নান করানো হচ্ছেনা বর ও কনেকে।শুধুমাত্র নদীতে গঙ্গা পুজা করেই ঘটে জল ভরে নিয়ে গেলেও সেই জল শরীরে একটু ছিটিয়ে দেওয়া হচ্ছে বর- কনের গায়ে।স্নান সারা হচ্ছে পরিষ্কার জলেই।মঙ্গলবার জলপাইগুড়ি শহরের বাবু ঘাটে করলা নদীতে বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য গঙ্গা পুজা করে নদীর জল ভরার পর এই প্রতিক্রিয়াই দিলেন বিয়ে বাড়ির লোকজন।এদিন নেতাজী সুভাষচন্দ্র বোসের জন্ম তিথি উপলক্ষে  সসমাজ ও নদী বাঁচাও কমিটির উদ্যোগে বাবু ঘাটে করলা নদী দূষন প্রতিরোধে প্রচার চালানো হয়।সংগঠনটির পক্ষ থেকে এদিন দুটি নৌকায় করে করলা নদী দূষন ঠেকাতে ব্যানার,ফেস্টুন লাগিয়ে প্রচার চালানো হয়।শহরের অনুভব হোমের কিশোরিরা নৌকায় প্রচারে অংশ নেন।নৃত্য পরিবেশন করেন ঘাটে।সংগঠনের আহ্বায়ক সঞ্জীব চ্যাটার্জি বলেন,করলা নদীতে শহরের গৃহস্থ্যের, বাজার,ধর্মীয় অনুষ্ঠানের সময় ফুল ও অন্য জিনিস নদীতে যাতে ফেলা না হয় সেই প্রচার সাড়া হয়েছে।নদী দূষন আটকাতে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করাই প্রচারের উদ্দেশ্য।অনুষ্ঠানের আগে নিজেরা করলা নদীর পাড় সাফ করে ব্লিচিং ছেটায়।কিন্তু তাতেও বাবু ঘাটের দুর্গন্ধ নাকে আসে।এদিন প্রচার চলাকালীন শহরের দুটি পরিবার বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য করলা নদীতে গঙ্গা পুজা করতে আসেন বাবু ঘাটে।কলসি,ঘটে করলার জল ভরেও নিয়ে যান।শহরের নয়াবস্তী এলাকার বাসিন্দা বিজলী সরকার আক্ষেপ করে বলেন,নদীর জলে দুর্গন্ধ।তবুও বিয়ের জন্য জল ভরে নিয়েছেন।কিন্তু চর্মরোগের সম্ভাবনা বলে নদীর জল সামান্য ছিটিয়ে পরিষ্কার জল দিয়েই স্নান করানো হবে বর কে।তবে করলা নদীকে তারাও কিছু ফেলে দুষন করেন নি।দ্রুত এই নদীকে দুষনমুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া উচিত বলে জানান।শহরের  নতুন পাড়ার বাসিন্দা শিপ্রা ঘোষ জানান,বলতে নেই প্রথা মেনে করলা নদীতেই তারা গঙ্গা পুজা করে থাকেন।কিন্তু নদীর নাব্যতা নেই,জল ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে উঠেছে।তবু এই জলকেই কনের স্নানের সময় ছিটিয়ে দিয়ে নিয়ম রক্ষা করা হয়।আমাদের সময় ২৫ বছর আগেও করলা নদীর জল ছিল দুষনমুক্ত।এদিন গবেষক উমেশ শর্মা  করলা নদী জলপাইগুড়ি শহরের প্রান।তাই এই নদীকে দূষণমুক্ত করার  সাথে নাব্যতা বৃদ্ধিও প্রয়োজন।আইনজীবী শান্তা চ্যাটার্জি বলেন, করলা নদী দূষন আটকাতে নদীবক্ষেই সংলগ্ন এলাকার মানুষের মধ্যে প্রচার চালানো হচ্ছে ।জলপাইগুড়ি র সাংসদ বিজয় চন্দ্র বর্মন জানান,করলা নদী দূষনমুক্ত করতে পুরসভা,সেচ এবং প্রশাসনের সাথে পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা চলছে।

জলপাইগুড়ি অনুভব হোমের কো অর্ডিনেটর দীপশ্রী রায় জানান, আমরা কিশোরি আবাসিমদের নিয়ে প্রচার করেছি শহরের ফুসফুস এই নদীকে যেন দুষন না করা হয়।

8.15 GB (54%) of 15 GB used
Last account activity: 0 minutes ago

Details

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here