Home Uncategorized নিখোঁজ প্রিসাইডিং অফিসারের ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার

নিখোঁজ প্রিসাইডিং অফিসারের ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার

369
0

রায়গঞ্জ, ১৬ মে : পঞ্চায়েত ভোটের ডিউটিতে রায়গঞ্জে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ প্রিসাইডিং অফিসার রাজকুমার রায়। গত মঙ্গলবার সন্ধেয় রায়গঞ্জের সোনাডাঙি এলাকায় রেললাইনের ধার থেকে একটি ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার হয়। অনুমান করা হয়েছিল, দেহটি রাজকুমারবাবুরই। বুধবার পরিবারের তরফে দেহের শনাক্তকরণের পর সেই অনুমান সঠিক হল। মৃত্যুর কারণ এখনও পুলিশ জানতে পারে নি। তিনি ইটাহার ব্লকের সোনাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪৮ নম্বর বুথের প্রিসাইডিং অফিসার পদে  যোগ দিয়েছিলেন।এছাড়াও রায়গঞ্জের সুদর্শনপুর এলাকার বাসিন্দা রাজকুমারবাবু করণদিঘির রহটপুর হাই মাদ্রাসার ইংরাজির শিক্ষক ছিলেন। ভোটগ্রহণের দিন রাত ৮টা নাগাদ শৌচকর্ম করার কথা বলে বুথ থেকে তিনি বেরিয়ে যান। তার আর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি। তার ফোনও বন্ধ হয়ে যায়। তার আগে শেষবারের মতো আত্মীয়দের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছিলেন তিনি।এছাড়াও তিনি তাদের বলেছিলেন রাত ১২টার মধ্যে বাড়ি ফিরবেন l দীর্ঘ সময় কেটে গেলেও বাড়ি ফেরেননি। সেদিনই মাঝরাতে রাজকুমারবাবুর খোঁজ করতে তার আত্মীয়রা পৌঁছান ইটাহার ব্লক অফিসে। গতকাল সকাল ১০টা নাগাদ ইটাহার সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক ইটাহার থানায় একটি নিখোঁজ অভিযোগ দায়ের করেন । রাজকুমারবাবুর সঙ্গে ভোট করতে যাওয়া তারই প্রতিবেশী রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস ও স্থানীয় বাসিন্দারা দেহটি রাজকুমারবাবুর বলে দাবি করেন। তাছাড়াও গতরাতেই রাজকুমার রায়ের ভাই ও তার স্কুলের প্রধান শিক্ষক সইদুল রহমান রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে গিয়ে মৃতদেহটি শনাক্ত করেন। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, রাজকুমার রায়কে খুন করা হয়েছে।এই ঘটনার পুলিশ খতিয়ে তদন্ত করছে।আজ তার দেহ আনা হবে তার নিজ বাস ভবনে শিলিগুড়ির ফাঁসিদেওয়া লেভেল ক্রসিংয়ের সামনে l এ ঘটনার জেরে তার পরিবার ও প্রতিবেশীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ তৈরী হয়েছে l স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে তার মৃত্যুর কারণ নিয়ে l

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here