Home Uncategorized শ্রমিক অসন্তোষের জের , লক আউট নোটিশ হলদিবাড়ি চাবাগানে

শ্রমিক অসন্তোষের জের , লক আউট নোটিশ হলদিবাড়ি চাবাগানে

229
0

জলপাইগুড়ি, ২৩ মার্চ: শ্রমিক অসন্তোষের জেরে অবশেষে ধুপগুড়ি ব্লকের হলদিবাড়ি চাবাগান কতৃপক্ষ বৃহস্পতিবার সকালে চাবাগানের গেটের সামনে লক আউট নোটিশ টানিয়ে বাগান ছেড়ে চলে গেলেন। এঘটনায় প্রায় ৩০০০ হাজার শ্রমিক বিপাকে পড়ে গিয়েছে।চা বাগান মালিক পক্ষের সংগঠন অবশ্য বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঘটনার জন্য শ্রমিকদের দায়ী করেছেন। প্রসঙ্গত বকেয়া বেতনের টাকা সহ নানা দাবিতে মংগলবার সকালে শ্রমিকেরা গেট মিটিং করে। এরপর দাবি দাওয়া নিয়ে ম্যানেজার বিবেকানন্দ মন্ডলের কাছে গেলে ম্যানেজার শ্রমিকদের সাথে দুর্ব্যাবহার করে বলে অভিযোগ।এরপরই শ্রমিকেরা ক্ষেপে যায়। অফিস থেকে ম্যানেজারকে টেনে বের করে আনে। তার গলায় জুতোর মালাও পড়িয়ে দেয় শ্রমিকেরা।ক্ষোভে সেদিন শ্রমিকেরা ম্যানেজারকে পায়ে হাটিয়ে পাচ কিমি দূরে বিন্নাগুড়ি পর্যন্ত নিয়ে যায়।সেখান থেকে বানারহাট থানার পুলিশ তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এদিন সকালে ফ্যাক্টরি গেটের সামনে লক আউট নোটিস ঝুলিয়ে বাগান ছেড়ে চলে যায় কতৃপক্ষ।           হলদিবাড়ি চাবাগানের শ্রমিক নেতা জ্যোতি মুন্ডা বলেন, বর্তমান ম্যানেজার আমাদের সাথে বৃটিশদের মত শাসন করে। আমাদের দাবি দাওয়া নিয়ে কোন কথাই তিনি শুনতে চাননা। যার ফলে ম্যানেজারের সাথে গন্ডগোল বেধে যায়।তবে আমরা চাইনি বাগান বন্ধ হয়ে যাক। আমরা চেয়েছিলাম এই ম্যানেজারকে আমরা ঢুকতে দেব না।দ্রুত চাবাগান খুলে যাক আমরা চাই। এদিকে ঐ চা বাগানের ম্যানেজারের সাথে কথা বলা যায়নি।তবে মালিকপক্ষ সংগঠন ডিবি আই টিএর সম্পাদক সুমন্ত গুহ ঠাকুরতা বলেন ম্যানেজারকে জুতোর মালা পড়িয়ে পাচকিমি পায়ে হাটিয়ে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় অতন্ত্য নিন্দনীয়।এই ঘটনা পুরো চা শিল্পে প্রভাব প্রভাব পরবে। শ্রমিকদের ব্যাবহার এরকম হলে চাবাগান চালানোই কঠিন হয়ে পড়বে। ঠিক একারনেই চাবাগানটি লক আউট ঘোষনাকরা হয়েছে। ডেপুটি লেবার কমিশনার পার্থবিশ্বাস বলেন,আমাদের এখনও অফিসিয়ালি কিছুই কেউই জানায়নি।অন্যমাধ্যমে শুনেছি বন্ধ হয়ে গিয়েছে।আগামি বুধবার সমস্যা মেটাতে ত্রিপাক্ষিক বৈঠক ডাকা হবে।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here