Home Uncategorized মালদার কল্যাণ সমিতির পুজোয় গ্রামবাংলা

মালদার কল্যাণ সমিতির পুজোয় গ্রামবাংলা

118
0
মালদা, ২৪ সেপ্টেম্বর : কংক্রিটের শহরে প্রাণ ওষ্ঠাগত সাধারণ মানুষের। আর কংক্রিটের শহরকে দূরে রেখে সবুজের “নির্মল বাংলার” পরিবেশ ফুটিয়ে তুলতে চলেছে মালদা শহরের দক্ষিণ বালুচর এলাকার কল্যাণ সমিতি ক্লাবের পূজো মন্ডপ। ‌এই পুজো মন্ডপে আসলেই মিলবে বুক ভরে মুক্ত অক্সিজেন।‌ আর তাতেই নিজেকে চনমনে করে তোলার সুযোগ পাবেন দর্শনার্থীরা। কল্যান সমিতির পূজা মন্ডপটি এবার আস্ত একটি গ্রাম যেন তুলে এনে বসানো হয়েছে। পুরো পরিবেশটাই পাল্টে ফেলেছেন উদ্যোক্তারা। কী নেই সেখানে, একটি আদর্শ গ্রামে যা যা থাকার কথা, তার থেকেও আরও বাড়তি কিছু দেখা মিলবে এই গ্রামে।
গ্রামের নাম কল্যাণপল্লি। গ্রামের মাঝেই একটি পুকুর। তাতে জলকেলি করতে দেখা যাবে হাঁসের দলকে। পুজো কমিটির সম্পাদক অমিতাভ শেঠ জানিয়েছেন , এই হাঁসগুলিকে মাস দেড়েক ধরে এখানেই রাখা হয়েছে, যাতে পোষ মানতে পারে। এখন বেশ পোষও মেনে গেছে তারা।’‌ একটু দূরেই জলাশয়, তাতে ফুঁটে রয়েছে পদ্ম। জলাশয় ছুঁয়ে বাম দিকে সবুজ খেত। মাস দেড়েক আগে লাগানো হয়েছে ধান। এখন ধান ফোঁটার অপেক্ষায়। আঁকাবাঁকা মেঠো পথ এগিয়ে চলেছে পাকা রাস্তার সন্ধানে। কৃষ্ণচূড়ার ছায়ায় গ্রামীণ বধূরা দাঁড়িয়ে, কোমড়ে তাদের কলসি। ন্যাংটো শিশুরা, হাতে তাদের খেলনা। সবই মডেলের মাধ্যমে তুলে ধরা হচ্ছে। মাস খানেক ধরে কাজ শুরু হয়েছে বলে জানান কল্যান সমিতির পুজো কমিটির উদ্যোক্তারা। আর এই গ্রামটি নিজের শিল্পে ফুটিয়ে তুলেছেন নন্দীগ্রামের নবকুমার লাল। তিনি জানান,‘‌ একটি নির্মল গ্রামে যা যা থাকার কথা, সবই রাখার চেষ্টা করেছি। কাশফুল যেমন দেখা যাবে, শালুক, পদ্মও দেখা যাবে।  এখন থেকে শহরবাসীর মধ্যে কল্যাণ সমিতির পুজো নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here